Breaking News
Home / প্রচ্ছদ / ময়মনসিংহে ডিভিশনাল বৃত্তি ২০১৮ এর পুরস্কার বিতরন ও ফল উৎসব

ময়মনসিংহে ডিভিশনাল বৃত্তি ২০১৮ এর পুরস্কার বিতরন ও ফল উৎসব

স্টাফ রিপোর্টার ঃ ময়মনসিংহ ডিভিশনাল স্কুল এন্ড কলেজের উদ্দ্যেগে গতকাল ১১ জুলাই বিকালে নিজ ক্যাম্পাসে

ডিভিশনাল বৃত্তি ২০১৮ এর বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কা বিতরন করা হয়েছে। প্রতিষ্ঠানের মাঠে আয়োজিত বর্নিল অনুষ্ঠানে

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের নব নির্বাচিত মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটু।

প্রধান অতিথির বক্তব্য মেয়র ইকরামুল হক টিটু বলেন, মেধা যাচাইয়ের একমাত্র উপায় হচ্ছে প্রতিযোগিতা। যা ব্যতিক্রমী

আয়োজন করেছে ময়মনসিংহ ডিভিশনাল স্কুল এন্ড কলেজ। প্রতিযোগিতার মধ্যে দিয়ে শিক্ষার্থীরা তাদের   মেধা সঠিক

ভাবে যাচাই করতে পারে এবং পড়াশোনায় আরো বেশি মনোযোগ গড়ে তুলতে সাহায্যে করবে। প্রত্যক প্রতিষ্ঠানের

প্রয়োজন এ ধরনের বৃত্তি মুলক প্রতিযোগিতার আয়োজন করা। পরে মেয়র ত্রিশজন শিক্ষার্থীর প্রথম তিনজনকে

অত্যাধুনিক লেপটপ এবং ২৭ জনকে বঙ্গবন্ধুর আত্মজীবনী বই ও ক্রেস্ট প্রধান করেন। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন

ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের ১৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফজলুল হক উজ্জ্বল, জি.কে.পি কলেজের সহকারী অধ্যাপক বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ দিলরুবা শারমীন,নজরুল সরকারি কলেজের অধ্যাপক সাব্বির রেজা, ময়মনসিংহ ডিভিশনাল স্কুল এন্ড কলেজের চেয়ারম্যান জাফর আহমেদ চৌধুরী,

পরিচালক সৌরভ দত্ত দিপু, অধ্যক্ষ শামীমা আক্তার (সুমী সসরকার) প্রধান শিক্ষক মাহফুজুর রহমান। পরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ব্যতিক্রমী ফল উৎসবের আয়োজন করা হয়। প্রতিষ্ঠানের পরিচালক সৌরভ দত্ত দিপু ফল উৎসবে বলেন,

শহরের বাচ্চারা দেশীয় ফলের গুনাগুন সম্পর্কে এই সময়ের শিশুরা তেমন একটা কিছু জানার সুযোগ হয়না। তাই ময়মনসিংহ ডিভিশনাল স্কুল এন্ড কলেজ পক্ষ থেকে আমাদের এই ধরনের একটা ব্যাতিক্রম উদ্যোগ নেওয়া। আমাদের

প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা যেনো হারিয়ে যাওয়া বাঙ্গালী সাংস্কৃতি ধরে রাখতে জানে তাই তাদেরকে এভাবে ছোটবেলা থেকেই গড়ে তুলছি।

সর্বশেষ আপডেটঃ ১১:২৪ পূর্বাহ্ণ | জুলাই ১২, ২০১৯

Check Also

বন্যা করোনা আম্ফান মোকাবেলায় শেখ হাসিনা সাহসের সাথে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন —————বেগম মতিয়া চৌধুরী

নালিতাবাড়ী(শেরপুর) প্রতিনিধি: বন্যা, করোনা, আম্ফান মোকাবেলায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সাহসের সাথে মানুষের পাশে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *