Breaking News
Home / Uncategorized / ময়মনসিংহের মঞ্চে আবারও সাড়া জাগালো মুক্তবাক থিয়েটারের “কী চাহ শঙ্খচিল”

ময়মনসিংহের মঞ্চে আবারও সাড়া জাগালো মুক্তবাক থিয়েটারের “কী চাহ শঙ্খচিল”

কাউছার পারভেজ শাকিলঃ অনসাম্বল থিয়েটারের একযুগ পূর্তি উপলক্ষ্যে আয়োজিত ‘বৃত্ত ভাঙার প্রত্যয় গড়ি নিত্য’ শীর্ষক নাট্যোৎসব-২০১৯ এর উদ্বোধনী সন্ধ্যায় প্রদর্শিত হয় ময়মনসিংহের অন্যতম নাট্যদল

মুক্তবাক থিয়েটারের নাটক “কী চাহ শঙ্খচিল”।

প্রখ্যাত নাট্যকার মমতাজ উদদীন আহমেদ রচিত এ নাটকটি মুক্তবাক থিয়েটারের ৫ম প্রযোজনা। নাটকটি নির্দেশনা দিয়েছেন তরুণ নাট্যশিল্পী ও সংগঠক হাসিবুর রহমান তুষার।

নাটকটিতে একাত্তরের একজন বীরাঙ্গনা নারীর নির্মম একটি কাহিনী বর্ণিত হয়েছে। গল্পের মূল চরিত্র রৌশনারা। স্বাধীনতা যুদ্ধের একজন নির্যাতিতা নারী রৌশনারা, মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে তিনি পাকিস্তানি

হানাদার বাহিনীর পাশবিক নির্যাতনের শিকার হয়ে ১২ দিন পর বাড়ি ফিরে আসার পর সেখানেও গভীর ষড়যন্ত্রের স্বীকার হতে হয় তাকে। মানসিক হাসপাতালে থাকাকালীন সময়ের রৌশনের স্মৃতিচারণ

কিংবা বলা-না বলা কথামালা নিয়েই এ নাটক। যার আর্তনাদে ভেসে আসে এমন হাজারো বীরাঙ্গনার অচেনা অধ্যায়।

ব্যতিক্রমী ধারার এ নাটকটির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন ময়মনসিংহের কিংবদন্তি মঞ্চাভিনেত্রী নূছরাত ইমাম বুলটি। এছাড়াও ভিন্ন ভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেন মাহিদুল হাসান রিতুল, সোমা আক্তার ও নির্দেশক হাসিবুর রহমান তুষার।নাটক শেষে মুগ্ধতার অনূভুতি ব্যক্ত করেন অধ্যাপিকা দিলরুবা

শারমিন। বীরাঙ্গনাদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর বিভিন্ন উদ্বৃতির আলোকে নূছরাত ইমাম বুলটিকে “বঙ্গবন্ধু কন্যা” হিসেবে আখ্যায়িত করেন তিনি। এসময় বিপুল

করতালির মধ্য দিয়ে তার এ মূল্যায়নের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে উপস্থিত দর্শকশ্রোতাগণ।

“থার্ড থিয়েটার হিসেবে পৃথিবীতে একাধিক নাটকের যে অভিযাত্রা- স্বল্প সময়ে, স্বল্প খরচে, স্বল্প কুশীলবের অধিক পরিমাণে রসদ প্রদানই এর উদ্দেশ্য। এ উদ্দেশ্য

স্বার্থক-এমনটাই বললেন বিশিষ্ট ব্যাকরণবিদ স্বপন ধর। তিনি আরো বলেন- শঙ্খচিল নাটকটির কেন্দ্রীয় চরিত্রে ঘূর্ণাবর্ত অভিনয়ের মধ্য দিয়ে দর্শকসহ পুরো

নাট্যমঞ্চটিকে হাসি-কান্না, দুঃখ-বেদনায় একাকার করে দিয়েছেন নূছরাত ইমাম বুলটি। তার শরীরী ভাষা নাটকটিকে দিয়েছে ভিন্নমাত্রা। এখানেই নাট্য নির্দেশক এবং কুশীলবদের স্বার্থকতা।”

১৪ নভেম্বর’১৯ বৃহস্পতিবার উৎসবের উদ্বোধন করেন ময়মনসিংহ জেলা শিল্পকলা একাডেমির জেলা কালচারাল অফিসার আরুজ পারভেজ। এসময় নাট্যজন অরবিন্দ সরকার জীবন, অধ্যাপক দিলরুবা শারমিন, নাট্যজন ইব্রাহিম খলিল, বিশিষ্ট উপস্থাপক

সারোয়ার জাহান, অনসাম্বল থিয়েটারের সভাপতি আবুল মনসুর, নাট্যজন রজত কান্তি দেবনাথ সহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

ময়মনসিংহের কাচারী ঘাট সংলগ্ন অনসাম্বল মুক্তমঞ্চে অনুষ্ঠেয় তিন দিনব্যাপী এ নাট্যোৎসবে অংশগ্রহণ করেছে দেশের অন্যতম ছয়টি নাট্যদল, প্রদর্শিত হবে

সাতটি নাটক। উৎসবের প্রথম দিনে প্রদর্শিত হয় দুটি নাটক।
মুক্তবাক থিয়েটারের ‘কী চাহ শঙ্খচিল’ প্রর্দশনীর পর মঞ্চস্থ হয় আয়োজক অনসাম্বল থিয়েটারের নাটক “কোর্ট মার্শাল”। দ্বিতীয় দিন ঢাকার ম্যাড থেটারের “নদ্দিউ নতিম” ও থিয়েটার সংলাপের ‘মদন ডাক্তার

রিমান্ডে” এবং সমাপনী দিনে মঞ্চস্থ হবে নাট্যভূমি’র “মধ্যানুষ”, মুক্তমঞ্চ নির্বাক দলের ” নকশা মূকাভিনয়- রিএ্যাকশ” এবং রঙ্গভূমি থিয়েটারের নাটক “আগুনের ছায়া”।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৫:৩৮ অপরাহ্ণ | নভেম্বর ১৫, ২০১৯

Check Also

ময়মনসিংহে ডিবি’র পৃথক অভিযানে মাদকসহ গ্রেফতার পাঁচজন

স্টাফ রিপোর্টার ঃ ময়মনসিংহে আইনশৃঙ্খলার গতি বেগবান করার লক্ষে ডিবি অফিসার ইনর্চাজ মোঃ শাহ কামাল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *