Breaking News
Home / ক্রাইম / ময়মনসিংহে নালিশী সম্পত্তিতে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ভবন নির্মাণ কাজ চলছে।

ময়মনসিংহে নালিশী সম্পত্তিতে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ভবন নির্মাণ কাজ চলছে।


সাইফুল ইসলাম ঃ ময়মনসিংহ মহানগরে নওমহল নন্দিবাড়ি ২০/বি মাকরজানিয়া এলাকার বাসিন্দা মৃৃত আবদুস সামাদের পুত্র ছোহাইলের পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত সম্পত্তিতে জবর দখল করে আদালতের নিষেধজ্ঞা অমান্য করে তার আপন মামা মোস্তুফা খান বহুতল ভবন নির্মাণ কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। কৌশল হিসাবে মোস্তুফা তার আর এক ভাগীনা ছোহাইলের বড় ভাই এসএম জুবায়েরকে হাতে নিয়ে বেআইনীভাবে তিন তলা ভবন নির্মাণ কাজ করছেন। ছোহাইল বাধ্য হয়ে ময়মনসিংহের বিজ্ঞ সিনিয়র জজ আদালতে ৬৪৪/২০১৯ অন্যপ্রকার

মোকদ্দমা দায়ের করেছেন। পরবর্তীতে দেওয়ানী কার্যবিধির আইনের আদেশ ৩৯বিধি-১/২ এবং ১৫১ ধারার বিধান মতে অস্থায়ী নিষেধজ্ঞা চেয়ে আদালতে পৃথক আবেদন করেছেন।

বিজ্ঞ আদালত এর প্রেক্ষিতে নালিশী ভুমিতে নির্মাণ কাজের উপর নিষেধজ্ঞা জারি করেছেন। অভিযোগকারী জানায় মোস্তুফা ও তার বড় ভাই এসএম জুবাইয়ের আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে তিন তলা ভবনের কাজ করছেন। ছোহাইল নির্মাণ কাজে বাঁধা দিলে তার বাঁধা অপেক্ষা করে ভবন নির্মান করার প্রেক্ষিতে ছোহাইল আদালতে গত ২১/১০/২০১৯ইং তারিখে ১০৭/১১৭(সি)ধারায় ময়মনসিংহ বিজ্ঞ নিবার্হী ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে আর একটি মামলা দায়ের করেন। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত ১৪৪ ধারা জারির জন্য গত ২০/১০/২০২০ই তারিখে ৮৭৪/১৯নং

মামলার প্রেক্ষিতে এক আদেশ জারি করেন। শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য আদালতের নির্দেশের প্রেক্ষিতে কোতোয়ালী মডেল থানার এসআই আবুল খালেক ফৌজধারী কার্যবিধি ১৪৪ ধারার নোটিশ গত ৫/১১/২০১৯ইং তারিখে জারি করেছেন। জারিকৃত নোটিশে উল্লেখ রয়েছে মামলার বিবাদী মোস্তুফা খান ও এসএম জুবাইয়ের জোরপূর্বকভাবে বাদী ছোহাইলের ভুমি দখল করার পায়তারা করছে। ভুমিকে কেন্দ্র করে কোন প্রকার আইন-শৃঙ্খলার বিঘ্ন ঘটলে আইনগত

ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ছাড়া উভয় পক্ষকে ময়মনসিংহ জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ রয়েছে। জানা গেছে, টাউন মৌজার সিএস খতিয়ান নং ৪১৭, আরওআর নং ৫১৩, বিআরএস ৩৭৬,সিএস দাগ নং ৬৩৪,আরওআর

৩৬৮৭,৩৬৮৮ও বিআরএস ১৩২৮৮,শ্রেণী বাড়ি,মোট ৯শতাংশ ১২ পয়েন্ট ভুমির মধ্যে হিস্যা অনুয়ায়ি বাদী ১শতাংশ ৪০ পয়েন্ট ভুমির মালিক। বাদীরা ৩ ভাই ও ৭ বোন। হিস্যা অনুযায়ি প্রত্যেক ভাই ১শতাংশ ৪০ পয়েন্ট ভুমির মালিক, কিন্তু বাদীর বড় ভাই এসএম জুবায়ের তার মামা মোস্তুফার কাছে ১শতাংশ ৬৬ পয়েন্ট ভুমি বিক্রী করেছেন। মামা এ দলিলকে পুঁজি করে আরো কিছু জায়গা দখল করে ২শতাংশ ৮৫ পয়েন্ট ভুমি নিজের দখলে নিয়ে গেছেন। ভুমির নাম খারিজ না করে বহুতল ভবনের নির্মাণ কাজ শুরু করেছেন।এ নিয়ে সৃষ্টি হয় বিরোধ এবং আদালতে চলছে মামলা।অভিযোগের প্রেক্ষিতে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে ভবনের নির্মাণ কাজ চলছে। মামলার অভিযুক্ত মোস্তুফা খান ও এসএম জুবায়েরকে জিজ্ঞাসা করলে মোস্তুফা বলেন

আদালতের নিষেধাজ্ঞার নোটিশ পাইনি। কিছু দিন কাজ বন্ধ রেখে ছিলাম, উকিলের সাথে পরামর্শ করেই কাজ শুরু করেছি। মোস্তুফা বলেন,জমি নিয়ে বিরোধ থাকলে ছোহাইল তার ভাইয়ের সাথে বুঝবে আমার কিছু করার নাই।এসএম জুবায়ের বলেন, আমি আমার ও এক বোনের অংশ মামার কাছে বিক্রী করেছি। বোন বিদেশে আছে, তাই দলিল করে দিতে পারে নাই, দেশে আসলেই তার অংশটুকু আমার নামে

দলিল করে দিয়ে দিবে। ১১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফরহাদ আলমের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন,এদের বিষয়ে আমি জানি এরা ভাল লোক নয়।আমার কাছে বিচার প্রার্থী হয়েছিল আমি উভয় পক্ষকে মিমাংসা করে দেওয়ার জন্য উদ্যোগ নিয়ে ছিলাম। হিস্যা অনুযায়ী বন্টন করে যার যার

অংশে দখলে যাওযার পরামর্শ দেই। এ ছাড়া মোস্তুফা যদি অধিক জায়গা দখল করে থাকে সে ক্ষেত্রে আলোচনার ভিত্তিতে সমাধান করে দেওয়ার আশ্বাস দেই কিন্তু আমার কথা এরা শুনেনি। এরা ঝগড়াটে প্রকৃতির লোক।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৯:০৫ পূর্বাহ্ণ | জুন ১৭, ২০২০

Check Also

ইব্রাহীম মুকুটকে সভাপতি ও মফিজ উদ্দিনকে সাধারণ সম্পাদক মনোনীত করে বাংলাদেশ সাংবাদিক জোট ময়মনসিংহ জেলা শাখার কার্যকরী কমিটির অনুমোদন

ময়মনসিংহ জেলা প্রতিনিধি ঃ ১৯ সদস্য বিশিষ্ট ময়মনসিংহ জেলা শাখা কার্যকরী কমিটির অনুমোদন দিয়েছে কেন্দ্রীয় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *